২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নে এইচএসসি পরীক্ষা দিল

২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নে এইচএসসি পরীক্ষা দিল

রাজশাহীর মাদার বখস গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কেন্দ্রের ২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নপত্রে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

 (৮ ডিসেম্বর) বুধবার , রসায়ন প্রথম পত্র এর পরীক্ষায় রাজশাহী শহরের এই কেন্দ্রটির মধ্যে এমন ঘটনা ঘটেছে।

২৩৮ পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নপত্রে এইচএসসি পরীক্ষা দিল !

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের ২০০টি কেন্দ্রে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। বুধবার সবগুলো কেন্দ্রেই পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে সেট-২ এর ‘তারা’ নামের প্রশ্নপত্রে। শুধু রাজশাহীর মাদার বখস গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কেন্দ্রে সেট-৪ এর পরীক্ষা নেওয়া হয়‘তিমি’ নামের প্রশ্নপত্রে । এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়  সকাল ১০টায়।

২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নে এইচএসসি পরীক্ষা দিল
২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নে এইচএসসি পরীক্ষা দিল

পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পর মাদার বখস গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ কর্তৃপক্ষ সেট ভুল হওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। তখন শিক্ষাবোর্ডকেও বিষয়টি জানানো হয়। কিন্তু তখন আর কিছু করার ছিল না। তাই ভুল প্রশ্নপত্রেই ২৩৮ জন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা নেওয়া হয়। ২০০টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৯৯টি কেন্দ্রে সেট-২ এবং এই একটি কেন্দ্রে সেট-৪ এর প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা হয়। ফলে এই কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীরা এখন উদ্বিগ্ন।

 জানতে চাইলে কেন্দ্র সচিব সালমা শাহাদাতও বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রে দুটি করেই সেট পাঠানো হয়। কোন সেটে পরীক্ষা নেওয়া হবে তা পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে শিক্ষাবোর্ড থেকে এসএমএস দিয়ে জানানো হয়।

 এই পরীক্ষার ক্ষেত্রে শিক্ষাবোর্ড থেকে এসএমএস ঠিকই এসেছে। কিন্তু ট্যাগ অফিসার হিসেবে থাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা (মাউশি) অধিদফতরের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সেট-৪ এর প্রশ্নপত্র বের করে দিয়ে দিয়েছেন। ট্যাগ অফিসারকে সেট-২ জানিয়েছিলেন বলে দাবি করেন সালমা শাহাদাত।

 তিনি বলেন, পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পরই তারা ভুল প্রশ্নপত্র দেওয়ার বিষয়টি জানতে পারেন। এরপর শিক্ষাবোর্ডে ফোন করে পরামর্শ চাওয়া হয়। বোর্ড ওই প্রশ্নেই পরীক্ষা নিয়ে নেওয়ার নির্দেশনা দেয়। এখন সেট-৪ এর প্রশ্নে এখানকার পরীক্ষার্থীদের মূল্যায়নের জন্য তিনি শিক্ষা বোর্ডে লিখিতভাবে আবেদন করেছেন।

 ভুল প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা শেষ করার পর বিষয়টি জানাজানি হয়। এতে পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের মধ্যে পরীক্ষার খাতা মূল্যায়ন নিয়ে উৎকণ্ঠা ছড়িয়ে পড়ে।

 নাসির ওয়াহিদ নামে একজন পরীক্ষার্থীর অভিভাবক জানান, তার বোন ভুল সেটের প্রশ্নে পরীক্ষা দিয়েছে। রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের সব শিক্ষার্থীর পরীক্ষার মূল্যায়ন হবে সেট-২-এ। অথচ এই মাদার বখস কেন্দ্রের ২৩৮ জনের মূল্যায়ন হবে সেট-৪-এ।

 নাসির বলেন, সেট-২-এ এবার অংক ছিল বেশি। আর সেট-৪-এ কম। যারা গণিতে ভালো তাদের ফলাফল ভালো হবে। গণিত মিলিয়ে দিতে পারলেই নম্বর পাওয়া যায়। আর লিখিত পরীক্ষা অনেক ভালো লিখলেও নম্বর কম পাওয়া যায়। এ কারণে সেট-৪ এর পরীক্ষার্থীরা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সময় এর প্রভাব পড়বে।

 ভুল প্রশ্নপত্র বিষয়ে রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আরিফুল ইসলাম বলেন, কোনোক্রমে আজ এমন একটা ভুল হয়ে গেছে। এই ভুল প্রশ্নের এখন আর কোনো সমাধান নেই। তবে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

 দুই সেট এরপরীক্ষার্থীদের মূল্যায়ন দুই রকমভাবে হবে, অভিভাবকদেরকে  এমন বক্তব্যের বিষয়ে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বলেছেন, সেট-৪ এর পরীক্ষার্থীদের ‘সেভাবেই’ মূল্যায়নের জন্য বলা হবে।

[২৩৮ জন পরীক্ষার্থী ভুল প্রশ্নে এইচএসসি পরীক্ষা দিল]

শিক্ষার অন্যান্য খবর সম্পর্কে জানুন:

প্রথম আলো: দাবি না মানলে পদত্যাগ

কিউআইএসআই গুরুকুল সাইটটি ব্যবহার করায় আপনাকে ধন্যবাদ। আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে “যোগাযোগ” আর্টিকেলটি দেখুন, যোগাযোগের বিস্তারিত দেয়া আছে।

You May Also Like

About the Author: ratul

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।